সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১২:৩১ পূর্বাহ্ন

শুক্রবার রেকর্ড ৮ জন সহ রোহিঙ্গা শনাক্ত ২১

কক্সবিডিনিউজ: নতুন করে আরো আটজন রোহিঙ্গা শরনার্থী করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে। শনাক্ত হওয়া ৮ জনের মধ্যে ৭ জনই কুতুপালংস্থ ৬ নং ক্যাম্পের এবং একজন টেকনাফের ২৬ নং ক্যাম্পের।


এ নিয়ে এ পর্যন্ত ২১ জন বলপূবর্ক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকের করোনা শনাক্ত হয়েছে। কক্সবাজার আরআরআরসি অফিসের স্বাস্থ্য সমন্বয়কারী ডা. আবু তোহা এম আর ভূঁইয়া রোহিঙ্গার শরীরে করোনা পজেটিভ পাওয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কক্সবাজার আরআরআরসি অফিসের স্বাস্থ্য সমন্বয়কারী ডা. আবু তোহা এম আর ভূঁইয়া জানিয়েছেন, শুক্রবার ২২ মে করোনা কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২৬ জন বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকের স্যাম্পলের মধ্যে ৮জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ভাইরাসে শনাক্ত হওয়া রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মধ্যে তিন পুরুষ ও পাঁচ জন নারী। তারা হলেন, মোহাম্মদ রফিক (২৩), ইউসুফ (১৩০, আফসানা (১৮), নুর জাহান, তৈয়বা বেগম, হুমাইরা (৩০) ও মোহাম্মদ। এ সাত জন ৬ নম্বর ক্যাম্পের বাসিন্দা। এ ছাড়া ২৬ নং ক্যাম্পের মোহাম্মদ আলম (১৭) নামে একজনের শরীরে করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে।

করোনা আক্রান্ত রোগীদেরকে ইতিমধ্যে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প থেকে পৃথক করে ক্যাম্পের অভ্যন্তরে স্থাপিত আইসোলেশন হাসপাতালে এনে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া এসব করোনা রোগীর সংস্পর্শে থাকা অন্যান্যদের খুঁজে কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে বলে যোগ করেন কক্সবাজার আরআরআরসি অফিসের স্বাস্থ্য সমন্বয়কারী ডা. আবু তোহা এম আর ভূঁইয়া।

এ পর্যন্ত ২৬০ জন বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকের করোনা স্যাম্পলের মধ্যে ২১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

তাছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট এখন থেকে পৃথক ২টি ভাগে দেওয়া হবে। ৩৪টি ক্যাম্পে থাকা রোহিঙ্গা শরনার্থীদের (Forcibly displaced myanmar Nations-বলপূবর্ক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক) করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট প্রতিদিন প্রথম দফায় দেওয়া হবে। কারণ তারা বাংলাদেশের নাগরিক নয়। আর কক্সবাজারের বাসিন্দা সহ বাংলাদেশের নাগরিকদের করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট দ্বিতীয় দফা দেওয়া হবে। করোনা ভাইরাস সংক্রামণ প্রতিরোধ কমিটির জেলা পর্যায়ের গত ১৯মে অনুষ্ঠিত একটি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে নির্ভরযোগ্য সুত্র জানিয়েছে। করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট ২দফে দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত গত ২১মে থেকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে কার্যকর করা হয়েছে।

আর এখন থেকে করোনার স্যাম্পল টেস্ট, সুস্থতা, করোনায় মৃত্যু, চিকিৎসাধীন রোগী, মোট করোনা রোগীর সংখ্যা সবকিছু রোহিঙ্গা শরনার্থী ও কক্সবাজারের নাগরিকদের জন্য পৃথকভাবে করা হবে বলে সুত্রটি জানিয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: কপি করা চলবে না