রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন

তরুণ আফিফের ব্যাটে বাংলাদেশের জয়ের হাসি

স্পোর্টস ডেস্ক ::

২৯ রানে ৪ উইকেট। সাকিব আল হাসানও আউট। খানিকবাদে ৬০ রানে নেই ৬ উইকেট। সাব্বির রহমানও মাথা নিচু করে ফিরছেন।

পুরো ম্যাচে তখন জিম্বাবুয়ের দাপট। কড়া নিয়ন্ত্রণ। কিন্তু এমন ম্যাচও জিতে নিলো বাংলাদেশ ৩ উইকেটে। দলকে জেতালো মাত্র সপ্তম উইকেট জুটি। আফিফ হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ৪৬ বলে ৮২ রানের জুটি বাংলাদেশকে এনে দিল অনেক স্বস্তির এক জয়। টি-টুয়েন্টি ক্যারিয়ারে নিজের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নেমেই ম্যাচ জয়ী ইনিংস খেললেন উনিশের এই তরুণ! ২৪ বলে তার হাফসেঞ্চুরির ইনিংস জানিয়ে দিলো এই ছেলে জাতীয় দলে অনেকদিন খেলার জন্যই এসেছে।

শুরুর ছয় অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাত্র ৬০ রানে ফিরে যাওয়ার পর এই ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়েছিলো বাংলাদেশ। তরুণ আফিফের ব্যাট দলকে নতুন করে পথ দেখালো। একপাশে সিনিয়র সদস্য মোসাদ্দেক এবং অন্যপ্রান্তে আফিফ-এই দুই ব্যাটসম্যান বাংলাদেশকে জেতালেন।

শেষ ওভারে জয় থেকে দল যখন মাত্র ৩ রান দুরে তখনই আফিফ আউট হলেন। শেষ ওভারে বাকি কাজটুকু সুসম্পন্ন করে দিলেন সাইফুদ্দিন।

টি-টুয়েন্টি দলে নতুন খেলোয়াড়দের সুযোগ দেয়ার সময় যে এসেছে সেটা এই ম্যাচে আফিফের ব্যাটিংই জানান দিলো।

জিম্বাবুয়ের ইনিংসে ব্যাট হাতে এই ম্যাচের নায়ক ছিলেন রায়ান বার্ল। মেরে কেটে ব্যাট চালিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম হাফসেঞ্চুরি হাঁকান মিডলঅর্ডার এই ব্যাটসম্যান। শুধু ব্যাটিং কেন? বোলিং এবং ফিল্ডিংয়ে দুর্দান্ত জিম্বাবুয়ের মিডলঅর্ডার এই ব্যাটসম্যান।

রানের স্বাস্থ্যটা হঠাৎ ফুলিয়ে নেয় জিম্বাবুয়ে শেষের ৮ ওভারে। এই সময় তারা যোগ করে ৮০ রান। এর মধ্যে আবার এক ওভারেই আসে ৩০ রান! সাকিবের শেষ ওভার থেকে রায়ান বার্ল ছক্কা চারের ঝড় বইয়ে দেন। তিন ছক্কা ও তিন বাউন্ডারিতে আসা এই ৩০ রানের ওভারই জিম্বাবুয়েকে পৌছে দিলো অনেক দুরে। ওভারটা শুরু করেছিলেন বার্ল ছক্কা দিয়ে। পুরো ওভারের রানের পর্যায়ক্রম এমন ৬+৪+৪+৬+৪+৬!

টি-টুয়েন্টিতে এক ওভারে সাকিবের এটাই সর্বোচ্চ রান খরচ। খুরুচে ওভারের বাংলাদেশি রেকর্ডটা মাত্র এক রানের জন্য ছুঁতে পারেননি সাকিব। রেকর্ডটা মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের। ২০১৭ সালের অক্টোবরে পচেফস্ট্রুমে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যান ডেভিড মিলার পেসার সাইফুদ্দিনের বলে পাঁচ ছক্কায় ৩১ রান তুলেছিলেন।

তবে সাকিবের খরুচে বোলিংয়ের এই দিনে বোলার চমক দেখান তাইজুল ইসলাম। ক্যারিয়ারের প্রথম টি-টুয়েন্টি খেলতে নেমে নিজের প্রথম বলেই উইকেট পাওয়ার কৃতিত্ব দেখান এই বাঁহাতি স্পিনার। আর্ন্তজাতিক ক্রিকেটে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এই নজির তৈরি করলেন তাইজুল।

তবে সাকিব বা তাইজুল কেউ নন, এই ম্যাচে আলোচনায় থাকলে আরেক বাঁহাতি-আফিফ হোসেন।

বিকেএসপির এই তরুণের ২৭ বলে ৫২ রানের ইনিংস বাংলাদেশকে এই ম্যাচ জেতালো এবং সেই সঙ্গে জানিয়ে দিল-আগামী দিনের তারকার আগমন!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
জিম্বাবুয়ে: ১৪৪/৫ (১৮ ওভারে, মাসাকাদজা ৩৪, বার্ল ৫৭*, মুতুমবদজি ২৭*, তাইজুল ১/২৬, সাইফুদ্দিন ১/২৬, মুস্তাফিজুর ১/৩১, মোসাদ্দেক ১/১০, সাকিব ০/৪৯)। বাংলাদেশ: ১৪৮/৭ (১৭.৪ ওভারে, লিটন ১৯, সৌম্য ৪, সাকিব ১, মুশফিক ০, মাহমুদউল্লাহ ১৪, সাব্বির ১৫, মোসাদ্দেক ৩০*, আফিফ ৫২, সাইফুদ্দিন ৬*, জারভিস ২/৩১, মাদজিভা ২/২৫, চাতারা ২/৩২)। ফল: বাংলাদেশ ৩ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা: আফিফ হোসেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: কপি করা চলবে না