বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৩৫ অপরাহ্ন

রোহিঙ্গাদের সিম নিয়ন্ত্রনে কঠোর উখিয়া উপজেলা প্রশাসন

কক্সবিডি নিউজ::

কক্সবাজারের উখিয়া -টেকনাফের রোহিঙ্গা শিবিরের ঘিরে কয়েক হাজার মোবাইল ফোনের দোকান গড়ে উঠেছে।এ গুলোতে থেকে বিপুল পরিমান টাকা রিচার্জ করছে রোহিঙ্গারা। রিচার্জ করার পাশাপাশি রোহিঙ্গারা বিকাশ,রকেটের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে টাকা পাঠাচ্ছে।

রোহিঙ্গাদের এত ধরনের র্কমর্কান্ডের ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সচেতন মহল।রোহিঙ্গারা যখন খেতে পারে না তখন একেক জন রোহিঙ্গার কাছে একের অধিক মোবাইল ফোন দেখতে পাওয়া যায় না।রোহিঙ্গারা বলেছেন,সৌদি আবর, দুবাই, ওমান, অস্ট্রেলিয়া, আমেরিকা সহ আরো অনেক দেশে আত্মীয় স্বজন বসবাস করছে।তাদের সাথে কিভাবে কথা বলব।

কারন এ দেশের সরকার মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন।মিয়ানমারের থাকতে বাঙ্গালী সীম ক্রয় করেছি।এখানে এসে দুইটি সীম ক্রয় করেছি উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা বাজার থেকে।এ বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির সীম পাওয়া যায়।
উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা বাজার,বালুখালী বলিবাজার ও হাকিম পাড়া সহ বিভিন্ন ভাবে অবৈধ ভাবে গড়ে উঠেছে মোবাইল ফোনের দোকান ।
অধিকাংশ দোকানের কোন ধরনের কাগজপত্র নেই বললে চলে।তবে কিছু সংখ্যাক দোকানে ইউনিয়ন পরিষদের ট্রেড লাইসেন্স দেখতে পাওয়া যায়।তবে এগুলো ফটোকপি করা।মূল টা দেখাতে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা বাজারের মোবাইল দোকান দার আবুল হোসেন ,মীর আহমদ,সৈয়দ আহমেদ।

উখিয়ার বালুখালী বলিবাজারের মোবাইল দোকানর সলিম উল্লাহ ও জাহাঙ্গীর আলমের সাথে এসব বিষয় জানতে চাইলে কিছু বলতে চাইনি।তবে তাদের পরিচয় জানতে চাইলে বলেন আমরা রোহিঙ্গা।এখানে বসবাস করি।

এসব সীম বিক্রি করার পেছনে উখিয়ার একটি সিন্ডিকেট রয়েছে।রোহিঙ্গাদের কাছে সীম বিক্রি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় ওই সিন্ডিকেট।এরা এখন ধরাছোয়ার বাহিরে রয়েছে গেছে।
কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার রোহিঙ্গাদের সিমকার্ড বিক্রয় ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে মোবাইল অপারেটরদের প্রতিনিধি, ডিলার ও স্থানীয় সিমকার্ড ব্যবসায়ীদের সাথে এক জরুরি বৈঠক অনুষ্টিত হয়েছে।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় উখিয়া উপজেলা পরিষদ সন্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তব্য দেয়ার সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গাদের কোন অবস্থাতেই সিম বিক্রি করা যাবেনা, যদি কোন এলাকা থেকে সিম এনে ব্যবসায়ীরা বিক্রি করেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক দোকান গুলোতে অচিরেই অভিযান পরিচালনা করা হবে।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উখিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সরওয়ার আলম শাহীন, সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও উখিয়া থানার উপ পরিদর্শক ফারুক আহামদ প্রমূখ।

এব্যাপারে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী র্কমর্কতা নিকারুজ্জামান চৌধুরী রবিন বলেন ক্যাম্প এলাকায় রোহিঙ্গাদের কোনো সীম বিক্রি করতে পারবে না।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: কপি করা চলবে না