রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন

স্থল পথে হতে পারে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন

সিএন ডেস্ক::

নৌ-পথের সিদ্ধান্ত বাতিল করে স্থল পথে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন করতে মিয়ানমার সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ। বৈরী আবহাওয়ার কথা চিন্তা করে এমন প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. আবুল কালাম।

সোমবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে নিজ কার্যালয়ে মিয়ানমার তদন্ত দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ তথ্য জানান তিনি।

মো. আবুল কালাম বলেন, ‘টেকনাফের কেরুতলীর নৌ-পথের সিদ্ধান্ত বাতিল করে বান্দরবানের ঘুমধুমের মৈত্রী সেতু দিয়েই প্রত্যাবাসন শুরু করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। মিয়ানমার সরকারের পক্ষ থেকে যাচাই-বাচাই করে তিন হাজার ৫৪০ জন রোহিঙ্গার তালিকা দেয়া হয়েছে তাদের অবস্থান ২৫-২৬ ও ২৭ নং ক্যাম্পে। সেখানেই ইউএনএইচসিআর তাদের মতামত নেবেন। তাদের মতামতের পরই বলা যাবে কখন প্রত্যাবাসন শুরু হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আগামীকাল মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) সকালে টেকনাফের ২৬ নং ক্যাম্পে প্রথম দফায় রোহিঙ্গাদের মতামত নেওয়া হবে। যদি তারা স্বেচ্ছায় যেতে রাজি হয় তাদের ট্রানজিট ক্যাম্পে নিয়ে আসা হবে।’

মিয়ানমারে তাদের কীভাবে রাখা হবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মিয়ানমার সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তারা প্রথমে রিসিভসন সেন্টারে যাবেন। সেখান থেকে নব-নির্মিত ট্রানজিট ক্যাম্পে নেওয়া হবে।’

এদিকে, বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে মিয়ানমারের কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘আগামী ২২ আগস্ট রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে চায় দুই দেশ। এর জন্য তারা সম্মত হয়েছে। এর পরই বাংলাদেশের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ট্রাস্কফোর্সের জরুরি বৈঠক ডাকা হয়।’

উল্লেখ্য , এর আগে গত বছরের ১৫ নভেম্বর নির্ধারিত সময়ে রোহিঙ্গাদের প্রতিবাদে প্রত্যাবাসন শুরু করতে পারেনি। সে-সময় উখিয়ার ঘুমধুম ও টেকনাফের নাফ নদী তীরে কেরুণতলী (নয়াপাড়া) প্রত্যাবাসন ঘাট নির্মাণ হয়েছিল। এরমধ্যে টেকনাফের প্রত্যাবাসন ঘাটে প্যারাবনের ভেতর দিয়ে লম্বা কাঠের জেটি, ৩৩ আধা সেমি-টিনের থাকার ঘর, চারটি শৌচাগার রয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: কপি করা চলবে না