সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন

কেমন মন্ত্রিসভা পেল ভারত

কক্সবিডি নিউজ::

নতুন উদ্যমে নয়া ভারত গড়ার লক্ষ্যে নতুন যাত্রা’ শুরু করল নরেন্দ্র মোদির নতুন সরকার। টানা দুইবার একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টিকে (বিজেপি) ক্ষমতায় রাখলেন তিনি। এক সময়ে যার গায়ে ‘দাঙ্গাগিরির দাদা’ বলে তকমা ছিল, সেই তিনিই দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন। বৃহস্পতিবার তার সঙ্গে শপথ নিয়েছেন আরও ৫৭ মন্ত্রী। কেমন মন্ত্রিসভা পেল ভারত?

সবচেয়ে বড় চমক, অবশ্য অনেকে আঁচ করেছিলেন আগেই, বিজেপির ‘সফলতম সভাপ্রধান’ অমিতশাহকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে বেছে নিয়েছেন মোদি। এ পদে আগের মন্ত্রিসভায় ছিলেন রাজনাথ সিং, তিনি এখন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন সুব্রাহ্মনিয়াম জয়শঙ্কর। নির্মলা সীতারমণ ভারতের ‘প্রথম নারী অর্থমন্ত্রী’ হিসেবে শপথ নিয়েছেন; আগের মন্ত্রিসভায় তিনি ছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। ১৯৭০ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী অবশ্য এ মন্ত্রণালয়েরও দায়িত্ব নিয়েছিলেন।

এবারের মন্ত্রিসভায় নেই সুষমা স্বরাজ ও অরুণ জেটলির মতো বিজেপির শীর্ষ নেতারা। আবার পুরনো অনেক নেতাই ফিরে এসছেন মন্ত্রিসভায়। আর নতুন মুখও রয়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। এ দিকে আমেথিতে তিনবারের নির্বাচিত আইনপ্রণেতা ও কংগ্রেসের সভাপ্রধান রাহুল গান্ধীকে হারিয়ে দেওয়া স্মৃতি ইরানিকে পূর্ণ মন্ত্রী করা হয়েছে। তিনি এখন নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী।

পাশাপাশি তাকে টেক্সটাইল দপ্তরের দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির উত্থানে বড় ভূমিকা রাখা নেতা বাবুল সুপ্রিয়কে স্বীকৃতিস্বরূপ প্রতিমন্ত্রী হিসেবে বেছে নিয়েছেন মোদি। এবার লোকসভায় নারী সাংসদ ৭৭ জন। কিন্তু এ মন্ত্রিসভায় নারীদের সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ছয়ে। আগেরবারই ছিল নয় জন। বাদ পড়াদের মধ্যে আগেরবারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ অন্যতম।

সংসদে যে ৩৩ শতাংশ নারী সদস্য থাকতে হবেÑ এই নীতি এখন প্রায় ম্লান, বলা চলে। অমিত শাহের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রিত্ব পাওয়া বড় একটি দিক। ৫৪ বছর বয়সী এই নেতা বিজেপির ইতিহাসে সবচেয়ে প্রভাবশালী প্রেসিডেন্ট। ২০১৪ সালের নির্বাচনে তার ভূমিকা ছিল। এবার তারই নেতৃত্ব কৌশলে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্যেও বড় সাফল্য পেয়েছে। এই মন্ত্রিসভায় উল্লেখযোগ্য চমকের আরেকটি হলো জয়শঙ্করের নিয়োগ।

পররাষ্ট্র দপ্তরের দায়িত্ব পান সাধারণত দলের অনুগতরা। ৬৪ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত এই কূটনীতিক এর আগে অবশ্য পররাষ্ট্র সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি চীন ও যুক্তরাষ্ট্র দুই দেশেই ভারতের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। বাদ পড়াদের মধ্যে অরুণ জেটলি তার স্বাস্থ্যগত সমস্যার কথা বলেছেন। কিন্তু মেনেকা গান্ধী, যিনি বিজেপির চারটি সরকারে মন্ত্রী ছিলেন, এবার তিনি জায়গা পাননি মন্ত্রিসভায়।

গতবার তিনি নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে ছিলেন, এবার তাকে অন্তর্বর্তী স্পিকার করা হয়েছে। বাদ পড়েছেন সাবেক সিভিল অ্যাভিয়েশন মন্ত্রী জয়ন্ত সিনহা। এ দিকে বিবিসি জানিয়েছে, এবারের ২৫ পূর্ণ মন্ত্রীর মধ্যে নয়জনই ব্রাহ্মণ। অথচ লোকসভায় ১৩১টি আসন শিডিউলড কাস্ট ও শিডিউলড উপজাতিদের জন্য বরাদ্দ। আবার দক্ষিণ ভারত লোকসভায় ১১৯ সাংসদ পাঠায়, কিন্তু মন্ত্রী হয়েছেন মাত্র তিনজন। আর মাত্র একজন মুসলিম মন্ত্রী (মুক্তার আব্বাস নাকভি, সংখ্যালঘু উন্নয়ন) রয়েছেন মোদির এবারের মন্ত্রিসভায়। কেমন করে মোদির ‘নতুন বাহিনী’, সেটিই এখন দেখার বিষয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: কপি করা চলবে না