বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০৬:৫৯ অপরাহ্ন

মানবপাচারকারীদের টার্গেট রোহিঙ্গা ক্যাম্প

ad

সিএন ডেস্ক ::

কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সুযোগ নিয়ে আবারও সক্রিয় হয়ে উঠেছে সাগরপথে মানবপাচারকারী চক্র। তারা ক্যাম্পে ক্যাম্পে ঘুরে ভালো ও ‘মুক্ত’ জীবনযাপনের টোপ দিচ্ছে।

তাদের প্রলোভনে পড়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে থাইল্যান্ড হয়ে মালয়েশিয়া-ইউরোপের স্বপ্নে গন্তব্যহীন ছুটছে রোহিঙ্গারা। তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে ৫০ হাজার থেকে এক লাখ টাকা পর্যন্ত। এই তৎপরতার সঙ্গে স্থানীয় কিছু লোক ও প্রভাবশালী রোহিঙ্গা জড়িত বলে জানা গেছে।

পুলিশের কাছে মানবপাচারে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তারের সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি।

কক্সবাজারে কর্তব্যরত গোয়েন্দা সংস্থা ও সমাজের প্রতিনিধিত্বকারী নেতৃবৃন্দ বলছেন, সাম্প্রতিক সময়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর নজর রয়েছে ইয়াবা চোরাচালানিদের দিকে। এ সুযোগে তৎপরতা শুরু করেছে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দালাল শ্রেণি সৃষ্টি করে তাদের মানবপাচারের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। পুলিশ বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মধ্যম শ্রেণির রোহিঙ্গা সিন্ডিকেটকে শনাক্ত করতে পারলেও আড়ালেই থেকে যাচ্ছে গডফাদাররা।

সাগরপথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া গমনের সময় গত ৭ জানুয়ারি টেকনাফের শামলাপুর উপকূল থেকে ৭ নারী ও ৮ পুরুষ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে পুলিশ। এর বাইরেও গত এক মাসে পাচারকালে ৬৪ নারী-পুরুষ রোহিঙ্গা উদ্ধার হয় বিজিবি ও র্যাবের হাতে।

উদ্ধারকারী সংস্থাগুলো বলছে দালালরা রোহিঙ্গাদের উখিয়া ও সাগরে ট্রলারযোগে ট্রানজিট পয়েন্ট হিসেবে থাইল্যান্ডে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে। সেখান থেকে সীমান্ত ডিঙিয়ে মালয়েশিয়া। পাচারকারী চক্র তাদের দুই-তিন দিন সাগরে ঘুরিয়ে ফের কক্সবাজার উপকূলে এসে জানান দেয় যে, তারা থাইল্যান্ডে এসেছেন। এভাবে তারা প্রতারিত হয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে ধরা পড়ছে।

পুলিশ বলছে, গত ৬ নভেম্বর উদ্ধার ১৪ রোহিঙ্গার মুখ থেকে টেকনাফ-উখিয়া ক্যাম্পে থাকা মানবপাচারকারী সিন্ডিকেটের কয়েকজনের নাম উঠে আসে। তাদের মধ্যে রয়েছেনÑ মোহাম্মদ আইয়ুব আলী, হাফেজ ছলিম, আতাত উদ্দিন, মোহাম্মদ আলম, আবদুর করিম, হাফেজ মোহাম্মদ আইয়ুব, আবদুল করিম, মোহাম্মদ ইলিয়াস, মোহাম্মদ কবির, আমির হোসেন, মোহাম্মদ ফয়েজ, নূর হোসেন, মোহাম্মদ নাগু, নুরুল কবির, আবুল কালাম, লাল বেলাল, দিল মোহাম্মদ, মোহাম্মদ ফারুক, জোবাইর হোসেন, লালু মাঝি, আলী আকবর, মোহাম্মদ ছলিম, মো. কবিরা, মোহাম্মদ শাহ। এদের অনেকের বিরুদ্ধে থানায় মানবপাচারের মামলাও রয়েছে।

উখিয়া মানবপাচার প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল হামিদ বলেন, সম্প্রতি সাগরপথে বেশ কয়েকজন মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমিয়েছেন।

অভিবাসন বিশেষজ্ঞ আসিফ মুনীর বলেন, গডফাদার আর চক্র যাই বলিÑ তারা কিন্তু সব সময় অবৈধভাবে মানবপাচারের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। সে ক্ষেত্রে গোয়েন্দা সংস্থা বা প্রশাসনকে আরও সতর্ক থাকা জরুরি।

২০১৪ সালের শেষের দিকে কক্সবাজারের উপকূলীয় অঞ্চলে সমুদ্রপথে অবৈধভাবে মানবপাচারের ঢল নামে। ২০১৫ সালের এপ্রিলে থাইল্যান্ডের সঙ্কলা প্রদেশের গভীর জঙ্গল ও মালয়েশিয়া সীমান্তে গণকবরের সন্ধান পায় দুই দেশের পুলিশ। থাইল্যান্ডের গণকবরে ৭০ ও মালয়েশিয়ায় ১৩৯টি মরদেহ উদ্ধার হয়। ওই ঘটনার পর বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি তালিকা তৈরি করে। এতে ২৩ জেলায় ১৭৭ পাচারকারী, ৩৯ গডফাদার এবং থাইল্যান্ড ও মিয়ানমারে অবস্থানরত দুই বাংলাদেশির নাম উঠে আসে। এর মধ্যে কক্সবাজারেই ৩২ মানবপাচারকারী ও গডফাদার রয়েছে। জেলার মধ্যে মানবপাচারকারীদের শীর্ষে টেকনাফ।

সম্প্রতি সাগরপথে মালয়েশিয়ায় পৌঁছেন উখিয়ার সোনারপাড়া গ্রামের সৈয়দ আলমের ছেলে সৈয়দ নূর, মঞ্জুর আলমের ছেলে শাহ কামাল, আলী আহমদের ছেলে রবিউল আলম। তারা আমাদের সময়কে বলেন, টেকনাফের মানবপাচারকারী মোস্তাক আহমদের মাধ্যমে তারা টেকনাফ পয়েন্ট দিয়ে পথ বাড়ান।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাস বলেন, পুলিশ কঠোর অবস্থানে থাকায় মানবপাচার বন্ধ রয়েছে। আবারও যেন মানবপাচারকারীরা সক্রিয় হতে না পারে সে বিষয়ে পুলিশ সতর্ক। তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি বেশ কিছু মানবপাচারকারী আটক হয়েছে। যেসব দালাল এখনো পলাতক, তাদের খুঁজে বের করা হবে।

কক্সবাজার জেলা পুলিশের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, যারা মাদককারবারে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তাদের একটি অংশ মানবপাচারকারী বা গডফাদার। যাদের অনেকেই রাজনৈতিক পরিচয়দানকারী। এ চক্রকে গ্রেপ্তারের ক্ষেত্রেও রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত জরুরি।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন বলেন, সাগরপথে মালয়েশিয়ায় মানবপাচার কমলেও পুলিশ, র্যাব, বিজিবি ও কোস্টগার্ড ছাড়াও গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে।

আমাদের সময়


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com