বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৫:০২ অপরাহ্ন

বদির কথা রাখলেন ইয়াবা ব্যবসায়ীরা

ad

সিএন ডেস্ক।।

কক্সবাজার ৪ উখিয়া-টেকনাফের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির কথা রাখলেন টেকনাফ-উখিয়ার ইয়াবা ব্যবসায়ীরা। বদি টেকনাফের একটি অনুষ্টানে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত তাদের আগামী পাঁচ দিনের মধ্যে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে আত্মসমর্পণ করতে হবে বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন। অনেকে ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে আত্মসমর্পণ করছেন টেকনাফের ইয়াবা ব্যবসায়ীরা।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কক্সবাজার জেলার সর্বশেষ তালিকায় অনুযায়ী ইয়াবা ব্যবসায়ীর সংখ্যা ১,১৫১ জন। তালিকাভুক্ত আসামীদের মধ্য থেকে ৭৩ জনকে শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন।

তিনি বলেন, ‘তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের অনেকে আত্মসমর্পণ করে নিজেদের সংশোধন করে চায় বলে আবেদন করেছে। সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকে সিগন্যাল পেয়ে সেই প্রক্রিয়া এখন চলছে।’

আগামী ২১ জানুয়ারি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের কাছে প্রায় ২০ জনের অধিক কক্সবাজার জেলার সর্বশেষ তালিকাবুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করবেন বলে জানা যায়।

আত্মসমর্পণ করতে যাওয়া ইয়াবা ব্যবসায়ীদের মধ্যে কক্সবাজার-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির ছোট ভাইয়েরাও আছেন বলে জানা যায়।

কক্সবাজারের টেকনাফ-উখিয়ার ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ করতে বলেছেন সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি। অন্যথায় পরিণতি ‘ভয়াবহ হবে’ বলে সতর্ক করেছেন তিনি। গত ১২ জানুয়ারি শুক্রবার সন্ধ্যায় টেকনাফের লামাবাজারে নিজের বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমান বদি।

তিনি আরো বলেছিলেন, ‘উখিয়া-টেকনাফে কোনো ইয়াবা ব্যবসায়ী থাকতে পারবে না। কেউ যদি আত্মসমর্পণ না করে, পরে তাদের পরিণতি ভয়াবহ হবে। টেকনাফের ছেলেহারা মা-বাবা, স্বামীহারা স্ত্রী ও বাবাহারা সন্তানদের কথা চিন্তা করে এ উদ্যোগ নিয়েছি।’

আত্মসমর্পণ না করলে তাদের দেশ ছাড়তে হবে। এলাকায় তাদের কোনো রেহাই নেই। কোনো ইয়াবা ব্যবসায়ী এলাকায় থাকতে পারবে না। হয় ভালো হয়ে যেতে হবে, না হয় দেশ ছেড়ে চলে যেতে হবে। কোনো মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেওয়া হবে না। মাদক-ইয়াবা ব্যবসাসহ সব ধরনের অপকর্ম বন্ধ করতে যা যা করণীয়, আমি তাই করব। ইয়াবাসহ মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই চলবে বলে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের হুঁশিয়ারি দেন

কক্সবাজার-৪ (টেকনাফ-উখিয়া) আসনের সংসদ সদস্য বদিপত্নী নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য শাহিন আকতার।
বন্দুকযুদ্ধে প্রাণ হারানোর ভয়ে আত্মসমর্পণ করে অর্ধশতর বেশি বর্তমানে পুলিশের হেফাজতে আছে বলে জানা যায়। তবে কতজন আত্মসমর্পণ করেছেন বা করবে তার সঠিক হিসাব জানা যায়নি।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন জানান, কক্সবাজারের ‘শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী যারা আছে তাদের শর্ত সাপেক্ষে এই আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে। তারা এলে ‘আমি ইয়াবা ব্যবসায়ী’ এই ঘোষণা দিয়ে আসতেছে। এর মাধ্যমে তাদের সংশোধনের ব্যাপারও থাকবে। তিনি আরো বলেন, ‘ভবিষ্যতে তারা যদি আবার আগের পথে ফিরে যায় তাহলে যেভাবে আইনি অভিযান চলছে সেভাবে চলবে।’

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে টেকনাফ এলাকায় ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত সন্দেহভাজন কয়েকজনের বাড়িতে হামলা ঘটনা ঘটেছে।আগুন দেওয়া হয়েছে অনেক নৌকায়। টেকনাফের পুলিশ জানায়, বলেছেন, রাতের অন্ধকারে মুখোশ পরা লোকজন এসব হামলা চালাচ্ছে। কিন্তু পুলিশের কাছে কেউ অভিযোগ জানাচ্ছে না।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com