বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৫:০৪ অপরাহ্ন

ঠিকাদার উধাও

ad

সিএন প্রতিবেদক।।

উখিয়া উপজেলার রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী রহমতেরবিল আঞ্চলিক সড়কের ৫টি গ্রামের হাজারো মানুষের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম চিতাখোলা কালভার্টটি ভেঙে দিয়ে ঠিকাদার উধাও হয়ে গেছে আজ প্রায় ৮ মাস। স্থানীয় চেয়ারম্যান বলেন, তারা এমনিতে রোহিঙ্গার প্রভাবে সার্বিকভাবে বিব্রতকর অবস্থায়। এমন পরিস্থিতিতে কালভার্ডটি ভেঙে দেয়ার ফলে এলাকায় বসবাসরত মানুষের চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে। সরজমিন এলাকা ঘুরে, স্থানীয় ইউপি সদস্য ও পালংখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মোজাফফর আহম্মদ সওদাগরের সঙ্গে আলাপ করা হলে তিনি জানান, ৮ মাস আগে ওই কালভার্টটি পুনর্নিমার্ণ করার নামে ভাঙচুর করে ঠিকাদার উধাও হয়ে যায়। যার ফলে রহমতেরবিল, উত্তর পাড়া, দক্ষিণ পাড়া, পণ্ডিতপাড়া, নলবনিয়া ও আঞ্জুমানপাড়াসহ ৫ গ্রামের মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপন, স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত তরিতরকারি বাজারজাতকরণ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তিনি বলেন, একজন মূমূর্ষু রোগীকে হাসপাতালে নিতে হলে দীর্ঘ বিকল্প পদ ধরে নিতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে সংকটাপন্ন রোগীদের বেলায় অবস্থা মারাত্মক বেগতিক বলে তিনি মন্তব্য করেন। জানা গেছে, জেলা (এলজিইডি) জেলা প্রকৌশলী থেকে উক্ত চিতাখোলা কালভার্ডটি পুনর্নির্মাণ করার জন্য ঠিকাদার নিয়োগ দিয়ে আট মাস আগে কার্যাদেশ দেয়া হয়েছিল।

ওই ঠিকাদার ব্রিজটি পুনর্নিমার্ণের জন্য সম্পূর্ণ ভেঙে ফেলে চলে যাওয়ার পর আর দেখা মেলেনি বলে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও ভুক্তভোগী গ্রামবাসী জানান। পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, চিতাখোলা কালভার্টটি নির্মাণের জন্য জেলা উপজেলা প্রকৌশল কর্মকর্তাদের একাধিকবার অবহিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে উখিয়া উপজেলায় দায়িত্বরত সহকারী প্রকৌশলী সোহরাব হোসেন বলেন, চিতাখোলা কালভার্টটি নির্মাণের জন্য পুনঃ টেন্ডার আহ্বানের প্রক্রিয়া চলছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 CoxBDNews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com